দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের প্রেক্ষাপটে স্পেনের গৃহযুদ্ধ আলোচনা কর।

১৯৩৬ থেকে ১৯৩৯ খ্রিস্টাব্দে স্পেনের গৃহযুদ্ধে বিদেশি শক্তির ভূমিকা


যে সকল আন্তর্জাতিক ঘটনা দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ ইন্ধন জুগিয়েছিল তাদের মধ্যে অন্যতম ছিল অন্যতম ছিল ১৯৩৬ থেকে ১৯৩৯ খ্রীস্টাব্দের স্পেনের গৃহযুদ্ধ।

ঐতিহাসিক ই. এইচ. কার স্পেনের গৃহযুদ্ধকে "ইউরোপের গৃহযুদ্ধ" বলেছেন।


১৯৩৬ খ্রিস্টাব্দে জুলাই মাসে মরক্কোয় অবস্থিত স্পেনীয় সেনাদল প্রথম বিদ্রোহ ঘোষণা করে। সমগ্র স্পেনবাসী এই যুদ্ধে জড়িয়ে পড়ে এবং স্পেনে গৃহযুদ্ধ শুরু হয়।


১৯৩৬-৩৯ খ্রিঃ স্পেনের বিভাজন রাজনীতি

কমিউনিস্ট, সমাজতন্ত্রী ও প্রজাতন্ত্রীরা প্রজাতান্ত্রিক সরকারকে সমর্থন করে এবং দক্ষিণপন্থী ফ্যালানজিস্ট, ন্যাশনালিস্ট, রাজতন্ত্রের সমর্থক কালিস্ট প্রভৃতি দক্ষিণপন্থী দল, যাজক, ভূস্বামী ও শিল্পপতিরা জেনারেল ফ্রাঙ্কের প্রতি সমর্থন জানায়। এইভাবে সমগ্র স্পেন দুটি দলে বিভক্ত হয়ে পড়ে। 

  • ১। প্রজাতন্ত্রী দল 
  • ২। জাতীয়তাবাদী দল

স্পেনের পশ্চিম অঞ্চল ছিল ফ্রাঙ্কের সমর্থক। আর পূর্ব, পশ্চিম ও মধ্য স্পেন ছিল প্রজাতন্ত্রীদের পক্ষে।


ঐতিহাসিক লাংশাম এই যুদ্ধকে "ক্ষুদ্র বিশ্বযুদ্ধ" বলে অভিহিত করেছেন। কারণ ইউরোপের বহু দেশ কম বেশি নানাভাবে পেনের গৃহযুদ্ধে জড়িয়ে পড়েছিল।


স্পেনের গৃহযুদ্ধে জার্মানী ও ইতালি ভূমিকা

স্পেনে বলশেভিক বিপ্লবের মত কিছু ঘটতে পারে এই আশঙ্কায় হিটলার ও মুসোলিনি ফ্রাঙ্কের সমর্থনে এগিয়ে আসে। তারা মনে করেন যে, ফ্রান্সের জয় হল একতন্ত্রের জয়। এবং এর ফলে ইউরোপের ফ্যাসিবাদী শক্তির সুদৃঢ় হবে। মুসোলিনি আশা করেন যে, ফ্রাঙ্কের বিজয় হলে পশ্চিম ইউরোপীয় অঞ্চলে ইতালির প্রভাব বৃদ্ধি পাবে। অপরদিকে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের মহড়া দেয়ার জন্য হিটলার তাঁর বিমানবহর ও ট্যাঙ্ক বাহিনী স্পেনে পাঠান।


স্পেনের গৃহযুদ্ধে রাশিয়ার ভূমিকা

রাশিয়া ছিল প্রজাতন্ত্রী সরকারের পক্ষে। রাশিয়ার আশঙ্কা ছিল যে ফ্রাঙ্ক জয়যুক্ত হলে স্পেনে একনায়কতন্ত্র স্থাপিত হবে। নিজ প্রভাব বৃদ্ধির আশায় রাশিয়া "পপুলার ফ্রন্ট" সরকারের কাছে যুদ্ধাস্ত্র, সামরিক পরামর্শদাতা ও দক্ষ কারিগর পাঠায়।


স্পেনের গৃহযুদ্ধে ইংল্যাণ্ড ও ফ্রান্সের ভূমিকা

ইংল্যান্ড, ফ্রান্স নিরপেক্ষতা নীতি গ্রহণ করলেও তারা পিছন থেকে জার্মানি ও ইতালিকে তোষণ করতে থাকে।


স্পেনের গৃহযুদ্ধে আন্তর্জাতিক বাহিনীর ভূমিকা

জার্মানি ও ইতালির ফ্যাসি বিরোধী উদ্বাস্তু এবং পৃথিবীর অন্যান্য বহুদেশের প্রজাতন্ত্রী, সমাজতন্ত্রী, কমিউনিস্টরা একটি আন্তর্জাতিক বাহিনী গঠন করে পপুলার ফ্রন্ট সরকারকে সাহায্যে উদ্যোগ নেয়। তবে এই উদ্যোগ ব্যার্থ হয়েছিল।


স্পেনের গৃহযুদ্ধে নিরপেক্ষ দেশের ভূমিকা

গৃহযুদ্ধকে স্পেনের অভ্যন্তরে সীমাবদ্ধ সীমাবদ্ধ করে রাখার উদ্দেশ্য ইউরোপের ২৭ টি দেশ স্পেনের ব্যাপারে হস্তক্ষেপ না করার নাতি গ্রহন করেন।


স্পেনের গৃহযুদ্ধে জাতিসংঘের ভূমিকা

জাতিসংঘ স্পেন থেকে বিদেশি সেনা প্রত্যাহারের দাবি জানিয়ে একটি প্রস্তাব পাস করে। কিন্তু এই প্রস্তাবে কেউ কর্ণপাত করেনি। অবশেষে তিন বছর যুদ্ধ চলার পর জেনারেল ফ্রাঙ্ক গৃহযুদ্ধে জয়ী হন এবং ১৯৩৯ খ্রিঃ ৪ ঠা এপ্রিল স্পেনে একনায়কতন্ত্র প্রতিষ্টিত হয়।


স্পেনের গৃহযুদ্ধের গুরুত্ব

স্পেনের গৃহযুদ্ধের প্রভাব কেবলমাত্র স্পেনের মধ্যেই সীমাবদ্ধ ছিল না। এর আন্তর্জাতিক প্রভাব ছিল যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ।

  • প্রথমতঃ স্পেনে ফ্রাঙ্কর নেতৃত্বে একনায়কতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত হওয়ায় আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে হিটলার ও মুসলিনির শক্তিজোটের প্রভাব প্রতিপত্তি বৃদ্ধি পায়।
  • দ্বিতীয়তঃ এই যুদ্ধের ফলে ইংল্যান্ড, ফ্রান্স ও অন্যান্য দেশগুলির কূটনৈতিক পরাজয় ঘটে এবং অপরদিকে জার্মানি প্রবলভাবে লাভবান হয়।
  • তৃতীয়তঃ এই যুদ্ধের মধ্যে দিয়ে হিটলার তার বিমান বাহিনীর কার্যকারিতা অন্যান্য অস্ত্রের শক্তি পরীক্ষা সুযোগ পাই তাই স্পেনের যুদ্ধকে "দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের মহড়া" বলা হয়।

Related Short Question:


1. স্পেনের গৃহযুদ্ধের কারণ কি ছিল?

    - স্পেনের রাজনৈতিক, সামাজিক এবং অর্থনৈতিক উত্তেজনা দ্বারা স্পেনের গৃহযুদ্ধের সূত্রপাত হয়েছিল।

 

2. স্পেনের গৃহযুদ্ধে প্রধান বিরোধী দল কারা ছিল?

    - যুদ্ধে প্রাথমিকভাবে রিপাবলিকান বাহিনী এবং ফ্রান্সিসকো ফ্রাঙ্কোর নেতৃত্বে জাতীয়তাবাদী বিদ্রোহীরা জড়িত ছিল।

 

3. স্পেনের গৃহযুদ্ধ কখন শুরু এবং শেষ হয়েছিল?

    - যুদ্ধ 1936 সালের জুলাই মাসে শুরু হয়েছিল এবং 1939 সালের এপ্রিলে শেষ হয়েছিল।

 

4. যুদ্ধের কয়েকটি প্রধান যুদ্ধ কোথায় সংঘটিত হয়েছিল?

    - মাদ্রিদ, বার্সেলোনা এবং টেরুয়েলের মতো শহরে উল্লেখযোগ্য যুদ্ধ হয়েছে।

 

5. কেন বিদেশী দেশগুলো স্পেনের গৃহযুদ্ধে জড়িয়ে পড়ে?

    - জার্মানি এবং ইতালির মতো বিদেশী দেশগুলি ফ্রাঙ্কোর জাতীয়তাবাদীদের সমর্থন করেছিল, যখন সোভিয়েত ইউনিয়ন রিপাবলিকানদের সমর্থন করেছিল, যা আন্তর্জাতিক সম্পৃক্ততার দিকে পরিচালিত করেছিল।

 

6. স্পেনের গৃহযুদ্ধ কিভাবে স্পেনের জনসংখ্যাকে প্রভাবিত করেছিল?

    - যুদ্ধের ফলে স্পেনের জনগণের মধ্যে উল্লেখযোগ্য প্রাণহানি এবং ব্যাপক দুর্ভোগ দেখা দেয়।

 

7. রিপাবলিকান এবং জাতীয়তাবাদীদের মধ্যে আদর্শগত পার্থক্য কি ছিল?

    - রিপাবলিকানরা প্রায়ই বামপন্থী, প্রগতিশীল মতাদর্শের সাথে যুক্ত ছিল, যখন জাতীয়তাবাদীরা দক্ষিণপন্থী, কর্তৃত্ববাদী বিশ্বাসকে গ্রহণ করেছিল।


 8. কোনো উল্লেখযোগ্য আন্তর্জাতিক স্বেচ্ছাসেবক যুদ্ধে যুদ্ধ করেছিলেন?

    - হ্যাঁ, আন্তর্জাতিক ব্রিগেড রিপাবলিকানদের সমর্থনের জন্য সারা বিশ্ব থেকে স্বেচ্ছাসেবকদের আকৃষ্ট করেছে।


 9. স্পেনের গৃহযুদ্ধের ফলাফল কি ছিল?

    - ফ্রান্সিসকো ফ্রাঙ্কোর নেতৃত্বে জাতীয়তাবাদীরা বিজয়ী হয়ে স্পেনে দীর্ঘস্থায়ী একনায়কত্ব প্রতিষ্ঠা করে।

 

10. কিভাবে স্পেনের গৃহযুদ্ধ আসন্ন কয়েক দশক ধরে স্পেনের রাজনৈতিক ল্যান্ডস্কেপকে প্রভাবিত করেছিল?

     - যুদ্ধটি জেনারেল ফ্রাঙ্কোর অধীনে প্রায় চার দশকের কর্তৃত্ববাদী শাসনের দিকে পরিচালিত করে, যা স্পেনের রাজনৈতিক, সামাজিক এবং সাংস্কৃতিক ল্যান্ডস্কেপকে গভীরভাবে প্রভাবিত করে।

Next Post Previous Post